আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে খুবিতে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত

আজ ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস। এ উপলক্ষে সকাল সাড়ে ১০ টায় ক্যাম্পাসের হাদী চত্বরে থেকে ‘আই অ্যাম জেনারেশন ইকুয়ালিটি : রিয়ালাইজিং উইমেন্স রাইটস’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। প্রধান অতিথি বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষের নেতৃত্বে শোভাযাত্রাটি হাদী চত্বর থেকে শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদ তাজউদ্দীন আহমদ প্রশাসন ভবনের সামনে দিয়ে পুনরায় হাদী চত্বর হয়ে কবি জীবনানন্দ দাশ একাডেমিক ভবনের সামনে গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রায়, সামাজিক বিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর মোছাঃ তাছলিমা খাতুন, চারুকলা স্কুলের ডিন (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. মোঃ মনিরুল ইসলামসহ সমাজ বিজ্ঞান স্কুলের বিভিন্ন ডিসিপ্লিন প্রধান, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কমকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন। পরে এ উপলক্ষে সকাল ১১ টায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি জীবনানন্দ দাশ একাডেমিক ভবনের মাল্টিপারপাস কক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় সামাজিক বিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর মোছাঃ তাছলিমা খাতুনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ। তিনি আন্তর্জাতিক নারী দিবসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরে বলেন নারীর হাত ধরেই সভ্যতার সূচনা এবং ধীরে ধীরে মানবজাতির যে সমৃদ্ধি তার নেপথ্যে বা প্রকাশ্যে নারীর অবদান অনস্বীকার্য। তিনি এ প্রসঙ্গে কবির সেই বিখ্যাত নারী কবিতার ছত্র তুলে বলেন ‘বিশ্বের যা কিছু মহান চিরকল্যাণকর/অর্ধেক তার করিয়াছে নারী অর্ধেক তার নর।’ তিনি বলেন আধুনিক সভ্যতার প্রতিটি ক্ষেত্রে নারীর অবদান রয়েছে। আগেকার দিনে বাল্য বিবাহের প্রচলন ছিলেন ফলে নারী শিক্ষা বা চাকরি ক্ষেত্রে পিছিয়ে ছিলো। পুরুষতান্ত্রিক সমাজের কারণে তারা নির্যাতনের শিকার হতো। আগেকার দিনে নারী শিক্ষায় পিছিয়ে ছিলো বলেই সমাজও এতে পিছিয়ে ছিলো। আজ সর্বত্র নারীর বিচরণ। বর্তমান সরকার নারী শিক্ষার উন্নয়নে যুগান্তকারী পদক্ষেপ নেওয়ায় দেশে নারী-পুরুষের শিক্ষায় ব্যবধান কমে এখন তা প্রায় সমান সমান। সমাজে নারীর অবদান বৃদ্ধি পাওয়ায় সামগ্রিক উন্নয়নও ত্বরান্বিত হচ্ছে। তিনি সকল স্তরে নারীর বৈষম্য বিলোপের উপর গুরুত্বারোপ করেন এবং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এ বিষয় সচেতনতা বৃদ্ধি ও নানা উদ্যোগের আহবান জানান। আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. মোসাম্মাৎ হোসনে আরা, ডিভেলপমেন্ট স্টাডিজ ডিসিপ্লিন প্রধান মোঃ হাসান হাওলাদার ও সমাজবিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. আব্দুল্লাহ আবুসাঈদ খান। সূচনা বক্তব্য রাখেন অর্থনীতি ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. নাসিফ আহসান। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ও স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমাজ বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের সহযোগী অধ্যাপক ড. তুহিন রায়। এছাড়া আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিভেলপমেন্ট স্টাডিজ ডিসিপ্লিনের ১৭ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে নারীদের বর্তমান অবস্থান ও আগামীর সম্ভাবনাকে তুলে ধরে পোস্টার প্রেজেন্টেশন করা হয় যা প্রধান অতিথি ও অন্যান্য অতিথিবৃন্দ ঘুরে দেখেন।