খুবিতে শিক্ষার্থীদের একাডেমিক কাউন্সেলিং এন্ড মোটিভেশন কর্মশালার তৃতীয় দিন


গ্রামাঞ্চলে খেলাধূলা কমে যাওয়ায় যুবসমাজের 

মধ্যে নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে : উপাচার্য

আজ ৭ জানুয়ারি ২০২০ খ্রি. তারিখ খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের সাংবাদিক লিয়াকত আলী মিলনায়তনে ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেলের (আউকিউএসি) উদ্যোগে প্রথম বর্ষে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের পাঁচ দিনব্যাপী একাডেমিক কাউন্সিলিং এন্ড মোটিভেশন কর্মশালার তৃতীয় দিনে ৫টি ডিসিপ্লিনের শিক্ষর্থীরা এই কর্মশালায় অংশ নেয়। ডিসিপ্লিনগুলো হচ্ছে পরিবেশ বিজ্ঞান, ফিশারিজ এন্ড মেরিন রিসোর্স টেকনোলজি, ফরেস্ট্রি এন্ড উড টেকনোলজি, ফার্মেসী এবং সয়েল ওয়াটার এন্ড এনভায়রনমেন্ট। সকাল সাড়ে ৯ টায় আইকিউএসির পরিচালক প্রফেসর ড. মোঃ সারওয়ার জাহানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ও পাওয়ার পয়েন্টে কি’স টু সাকসেস ইন হায়ার এডুকেশন (উচ্চ শিক্ষায় সফলতার চাবিকাঠি) শীর্ষক নিবন্ধ উপস্থাপন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান।

তিনি বলেন আমাদের দেশে গ্রামাঞ্চলে আগে খেলাধূলা ও সাংস্কৃতিক চর্চা হতো। যুবসমাজ স্কুল-কলেজে সহশিক্ষামূলক কার্যক্রমে সম্পৃক্ত থাকতো। কিছু না হলেও তারা পরিবারের কাজে মাঠে-ঘাটে সহযোগিতা করতো। কিন্তু এখন সে চিত্র পাল্টে গেছে। এখন যুবসমাজ অধিকাংশ সময় কাটায় মোবাইল-ফেসবুকে। সন্ধ্যার পর ধূমপানের নামে এখানে ওখানে বসে মাদক সেবনের আড্ডা। এ অবস্থায় যুবসমাজের মধ্যে নীতিবাচক প্রভাব পড়ছে। তাদের মধ্যে মূল্যবোধের দারুণভাবে অবক্ষয় দেখা দিয়েছে। সৃজনশীলতা কমে যাচ্ছে। দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেও মাদকের ছোঁবল পড়েছে। কিছু সংখ্যক বখাটে ছাত্র নতুনদের নানা অজুহাতে বিভ্রান্তীর পথে নিতে চায়। বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্পণকারী নবাগত শিক্ষার্থীদের সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হিসেবে তাদের আভিজাত্যবোধ থাকতে হবে। যাতে অনুজ শিক্ষার্থীরা তাদেরকে অনুসরণ করতে পরে। 

তিনি আরও বলেন জীবনে সাফল্য অর্জন করতে হলে কঠোর পরিশ্রমের সাথে অনেক পরিবেশেরও প্রয়োজন। প্রার্থনার সাথে প্রচেষ্টার দরকার। সময়ানুবর্তী হতে হবে। পাঠ্য বিষয়ের অনুধাবন করতে পারা, দায়িত্বশীল হওয়া, অধ্যাবসায়ী হওয়া, পারিপার্শ্বিক জ্ঞানলাভ, দেশ-সমাজ-পরিবার-জাতির প্রতি কমিটমেন্ট থাকা দরকার। তিনি বলেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের প্রচেষ্টায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় আজ অন্য উচ্চতায় পৌঁছে গেছে। আমরা শিক্ষার্থীদের সুবিধা সৃষ্টিতে নতুন নতুন পরিকল্পনা করছি। অচিরেই বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারে পূর্ণকালীণ না পাওয়া গেলেও খন্ডকালীণ সাইক্লোলজিস্ট নিয়োগ দেওয়া হবে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জীব বিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ রায়হান আলী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জিয়াউল হায়দার। কয়েকটি সেশনে বিভিন্ন বিষয়ের ওপর পাওয়ার পয়েন্টে নিবন্ধ উপস্থাপন করেন আইন ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. মোঃ ওয়ালিউল হাসানাত, ফার্মেসী ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. আশীষ কুমার দাস এবং ইনস্টিটিউট অব এডুকেশন রিসার্চ (আইইআর) এর সহকারী অধ্যাপক কল্যাণী বাইন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আইকিউএসির উপ-রেজিস্ট্রার মোঃ নুরুল ইসলাম সিদ্দিকী। এ সময় সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনসমূহের প্রধানবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।