এশিয়া, ইউরোপ ও আফ্রিকার ৮টি দেশে পরিচালিত হচ্ছে গবেষণা আন্তঃমহাদেশীয় যৌথগবেষণা প্রকল্পে যুক্ত হওয়ায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে: উপাচার্য


এশিয়া, ইউরোপ ও আফ্রিকার ৮টি দেশে পরিচালিত হচ্ছে গবেষণা
আন্তঃমহাদেশীয় যৌথগবেষণা প্রকল্পে যুক্ত হওয়ায়
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে: উপাচার্য

প্রায় ৮০কোটি টাকা মূল্যের আন্তঃমহাদেশীয় যৌথগবেষণা প্রকল্পের সাথে যুক্ত হওয়ায় দেশে-বিদেশে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি বেড়েছে বলে উল্লেখ করেছেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান। তিনি আজ ৬ ফেব্রুয়ারি দুপুরে নগর ও গ্রামীন পরিকল্পনা ডিসিপ্লিনের লেকচার থিয়েটারে আয়োজিত রিসার্চ কাউন্সিল ইউকে (আরসিইউকে) এর গ্লোবাল চ্যালেঞ্জ রিসার্চ ফান্ড এর অর্থায়নে সাসটেইনেবল হেলথদি এন্ড লার্নিং সিটিস এন্ড নেইবারহুডস (এসএইচএলসি) নামক এ আন্তঃমহাদেশীয় প্রকল্পের পর্যালোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখছিলেন। উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় অংকের (আট কোটি টাকা) গবেষণা প্রকল্প লাভ করা এবং সেখানে বাংলাদেশ অংশের নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য প্রকল্পের টিম লিডার ড. শিল্পি রায়কে ধন্যবাদ জানান। উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-গবেষকদের প্রতি বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সাথে যুক্ত হয়ে নিজেদের ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সক্ষমতা বৃদ্ধির আহবান জানিয়ে বলেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যৌথ শিক্ষা-গবেষণার প্রতি উৎসাহিত করছে। গতবছর ৫ এপ্রিল এ প্রকল্পটির সাথে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চুক্তি স্বাক্ষরের পর এটি ইতিমধ্যে কাজ শুরু হয়েছে। উপাচার্য পরে এ প্রকল্পের অফিস উদ্বোধন করেন। তিনি অত্যন্ত নান্দনিক ও আধুনিকমানের অফিস স্থাপনের জন্য ধন্যবাদ জানান। নগর ও গ্রামীন পরিকল্পনা ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. শেখ মোঃ মুরছালীন মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস, ডিসিপ্লিনের সিনিয়র প্রফেসর ড. মোঃ রেজাউল করিম এবং প্রফেসর ড. এটিএম জহিরউদ্দিন। স্বাগত বক্তব্য প্রদান ও পাওয়ার পয়েন্টে প্রকল্পের কার্যক্রম সম্পর্কে তথ্য উপস্থাপন করেন প্রকল্পের কান্ট্রি লিডার ড. শিল্পি রায়। এ সময় বিভিন্ন স্কুলের ডিনবৃন্দ, ডিসিপ্লিনের প্রধান ও সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের শিক্ষকবৃন্দ ও প্রকল্পে সংযুক্ত গবেষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, রিসার্চ কাউন্সিল ইউকে (আরসিইউকে) এর গ্লোবাল চ্যালেঞ্জ রিসার্চ ফান্ড এর অর্থায়নে সাসটেইনেবল হেলথদি এন্ড লার্নিং সিটিস এন্ড নেইবারহুডস (এসএইচএলসি) নামক এ আন্তঃমহাদেশীয় প্রকল্পটি দীর্ঘ ১৪ মাসের তিনটি পর্যায়ের নিরীক্ষণ পেরিয়ে আরসিইউকে এর জিসিআরএফ অনুদানের জন্য নির্বাচিত হয়। যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব গ্লাসগো (টহরাবৎংরঃু ড়ভ এষধংমড়)ি প্রকল্পটির প্রধান বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করছে। এই গবেষণাভিত্তিক প্রকল্পে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের নগর ও গ্রামীণ পরিকল্পনা ডিসিপ্লিনসহ এশিয়া ও আফ্রিকা মহাদেশের ৮টি বিশ্ববিদ্যালয় ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান প্রকল্প সহযোগী হিসেবে কাজ করবে। ৫১ মাসব্যাপী চলা এই প্রকল্পের মাধ্যমে ৮টি দেশের ৮টি বিশ্ববিদ্যালয় ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সাথে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুদূরপ্রসারী সম্পর্ক তৈরি হবে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় আন্তঃদেশীয় তুলনামূলক গবেষণায় সক্রিয়ভাবে অংশ নেবে এবং অন্যান্য সহযোগী প্রতিষ্ঠানের সাথে দ্রুত নগরায়নের প্রক্রিয়া সম্পর্কে একটি নতুন ধারা দিতে পারবে যা আমাদের শহর এবং মহল্লা এর সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে বলে আশা করেন কান্ট্রি টিম লিডার। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ ও অন্যান্য অংশীদার দেশগুলোতে নতুন ধারণা, নীতিমালা, নগর পরিকল্পনা ও নেইবাহুডস (ঘবরময নড়ঁৎযড়ড়ফং ) উন্নয়নের চর্চা গড়ে তোলার ভূমিকা পালন করতে পারবে। বাংলাদেশের ঢাকা ও খুলনা এই দুটি শহরকে এই প্রকল্পের স্টাডি শহর হিসেবে নেওয়া হয়েছে যার কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে।