খুবি ক্যাম্পাসে অগ্রণী ব্যাংকের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন


আজ ৬ অক্টোবর ২০১৮খ্রি. তারিখ খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অগ্রণী ব্যাংকের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন করা হয়। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামকৃত অগ্রণী ব্যাংকের আধুনিক সেবা কার্যক্রমের পরিসর বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায় সম্প্রসারণের জন্য ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। নতুন এই ভবন উদ্বোধনের ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ ব্যাংকের সকলশ্রেণির গ্রাহক সুন্দর পরিবেশে তাদের ব্যাংকিং কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি এ প্রসঙ্গে বলেন বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হয়েছিলো বলে আজ বাংলাদেশের সন্তানেরা সকল পেশায় নেতৃত্ব দিচ্ছে। আমাদের অর্থনীতি এখন রোল মডেল। বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বে দেশ সকল ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অগ্রণী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহম্মদ শামস-উল ইসলাম। তিনি ব্যাংকের আধুনিক কার্যক্রম, ভিশন মিশন ও সার্বিক অগ্রযাত্রায় বর্তমান সরকারের পৃষ্ঠপোষকতার কথা কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করেন এবং এ ব্যাংকের কার্যক্রম আরও জোরদারে আন্তরিকতার সাথে কাজ করার জন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আহবান জানান। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ব্যাংকের জন্য স্থায়ী জায়গা করে দেওয়ার জন্য তিনি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এবং বিশেষ করে উপাচার্যের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান প্রকৌশল ও প্রযু্িক্ত বিদ্যা স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ রেজাউল হক, ছাত্রবিষয়ক পরিচালক প্রফেসর শরিফ হাসান লিমন, ব্যাংকের উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আনিসুর রহমান, প্রধান কার্যালয়ের মহাব্যবস্থাপক মোঃ আব্দুস সালাম মোল্লা, খুলনা সর্কেলের মহাব্যবস্থাপক মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম, ফরিদপুর সার্কেলের মহাব্যবস্থাপক এ এম আবিদ হোসেন, খুবির অর্থ ও হিসাব বিভাগের পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) শেখ মোস্তাক আলী। ব্যাংকের উপ-মহাব্যবস্থাপক ও অঞ্চল প্রধান মোঃ মনিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ব্যবস্থাপক মোঃ মশিউল ইসলাম। প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি ফিতা কেঁটে ব্যাংকের নতুন ভবনের উদ্বোধনের পর নাম ফলক উন্মোচন করেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্কুলের ডিন, শিক্ষক, কর্মকর্তা- কর্মচারী এবং অগ্রণী ব্যাংকের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মাকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, চারতলা এ ব্যাংক ভবনটির নির্মাণ ব্যয় হয়েছে প্রায় ৩ কোটি টাকা এবং এটাই এ অঞ্চলের অগ্রণী ব্যাংকের সবচেয়ে দৃষ্টি নন্দন ভবন।