খুবির ছয়টি ডিসিপ্লিনের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের নিয়ে কর্মশালা অনুষ্ঠিত


test

নিয়মানুবর্তিতা, মূল্যবোধ ও দেশপ্রেম সফলতার
উচ্চশিখরে নিয়ে যেতে সহায়তা করে: উপাচার্য

আজ ১৪ মার্চ ২০১৭ খ্রি. তারিখ মঙ্গলবার খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য জগদীশ চন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের সাংবাদিক লিয়াকত আলী মিলনায়তনে ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেল (আইকিউএসি) এর উদ্যোগে ইংরেজি, বাংলা ভাষা ও সাহিত্য, ইতিহাস ও সভ্যতা, ড্রইং এন্ড পেইন্টিং, ভাস্কর্য এবং প্রিন্টমেকিং এ ছয়টি ডিসিপ্লিনের প্রথম বর্ষে ভর্তিকৃত নতুন শিক্ষার্থীদের জন্য ‘ওয়ার্কশপ অন একাডেমিক কাউন্সিলিং এন্ড মোটিভেশন’ শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৯টায় এ কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আইকিউএসির পরিচালক প্রফেসর ড. আহমেদ আহসানুজ্জামান। কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় জ্ঞান অর্জনের পীঠস্থান। এখানে ক্লাসের বাইরেও প্রত্যেক জায়গা থেকে শেখা যায়। তিনি বলেন,  লেখাপড়ার ক্ষেত্রে না বুঝে কেবল মুখস্থ করে পড়াশোনা করলে আত্মস্থ কম হয়, এতে শিক্ষার্থীরা অনুধাবন করে কম, তাই তাদের বিশ্লেষণ দক্ষতা কম হয়। তিনি বলেন, ভালো রেজাল্ট করা, ভালো চাকরি পাওয়া,  গাড়ি বাড়ি হওয়া মানেই জীবনে সফলতা অর্জন নয়। ভালো মানুষ হওয়া, মানবিক মূল্যবোধসম্পন্ন মানুষ হওয়াই বড় কথা। জীবনে সফলতা অর্জনের জন্য নিরন্তর প্রচেষ্টা চালাতে হবে যাতে কোনো কাজে ব্যর্থ না হতে হয়। ব্যর্থ না হওয়া মানেই সফলতা অর্জন করা। তিনি বলেন বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখা পড়ার জন্য ভাষাজ্ঞান বাড়াতে হবে। বিষয় সম্পর্কে ভালো বুঝতে হবে তা হলে জ্ঞানের পরিসীমা বাড়বে। নিয়মানুবর্তিতা, মূল্যবোধ ও দেশপ্রেম সফলতার উচ্চশিখরে নিয়ে যেতে সহায়তা করে। তিনি বলেন, পরিবারের স্বপ্ন মানেই সমাজ ও দেশের স্বপ্ন, নিরন্তর বিশ্ব সমাজের স্বপ্ন। তিনি বলেন গত বছর থেকে প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের এ ওয়ার্কশপের মাধ্যমে মোটিভেশন শুরু করা হয়েছে।  এ উদ্যোগ গ্রহণের ফলে র‌্যাগিং নামের অপসংস্কৃতি প্রায় অপসারিত হয়েছে। নতুন শিক্ষার্থীদের মধ্যে উচ্চশিক্ষার মানোন্নয়নের ধারণা বেড়েছে। কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কলা ও মানবিক স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. সাবিহা হক।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরে বিভিন্ন বিষয়ভিত্তিক পেপার উপস্থাপন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান, কলা ও মানবিক স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. সাবিহা হক, স্থাপত্য ডিসিপ্লিনের প্রধান প্রফেসর ড. অনির্বাণ মোস্তফা, সিইটিএল’র পরিচালক প্রফেসর ড. আফরোজা পারভীন, আইকিউএসির পরিচালক প্রফেসর ড. আহমেদ আহসানুজ্জামান এবং আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক প্রফেসর ড. কামরুল হাসান তালুকদার। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক প্রফেসর ড. সমীর কুমার সাধু। এ সময় ইংরেজি, বাংলা ভাষা ও সাহিত্য, ইতিহাস ও সভ্যতা, ড্রইং এন্ড পেইন্টিং, প্রিন্টমেকিং এবং ভাস্কর্য ডিসিপ্লিনের প্রধানবৃন্দ ও সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনসমূহের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।